সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় স্কুলছাত্রীকে দলবেঁধে ধর্ষণ : আটক ৪

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি:
সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলার সলঙ্গায় নবম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে কৌশলে ডেকে নিয়ে (১৫) দলবেঁধে ধর্ষণের অভিযোগে উঠেছে। এঘটনা পুলিশ ৪ যুবককে আটক করেছে। বুধবার গভীর রাতে বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

এরা হলেন, তাড়াশ উপজেলার গোয়ালগ্রাম এলাকার নজরুল ইসলামের ছেলে আব্দুল আলীম (২৮), নলুয়াকান্দি গ্রামের আব্দুস সামাদের ছেলে আব্দুস সাত্তার (৩২), আকতার হোসেনের ছেলে ফিরোজ (২০) ও দোবিলা এলাকার আব্দুল কাদের শেখের ছেলে হৃদয় শেখ (২০)।

পরে বৃহস্পতিবার দুপুরে সলঙ্গা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হুমায়ন কবির জনান, বুধবার দুপুরে নির্যাতিত স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে ৬ যুবকের বিরুদ্ধে তার মেয়েকে দলবেঁধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে থানায় মামলা করেন। মামলার পর থেকে রাতভর অভিযান চালিয়ে ওই চারজনকে আটক করা হয়েছে।

মামলার সূত্র ধরে তিনি আরও বলেন, বেশ কিছুদিন আগে আব্দুল আলীম নামের যুবকের সাথে ওই স্কুলছাত্রীর সম্পর্ক ছিল। সম্পর্কের সূত্র ধরে গত ১৪ মার্চ সন্ধ্যায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তাকে ফোন করে দবিরগঞ্জ বাজার এলাকায় ডেকে নেয় আলীম। পরে তাকে অজ্ঞাত কোন বাড়ীতে নিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এরপর আলীম তার বন্ধু সাত্তারকে ডেকে এনে তার হাতে তুলে দেয়৷ সাত্তার মোটর সাইকেলে ওই ছাত্রীকে তুলে পার্শ্ববর্তী এক ইউক্যালিপটাস বাগানে নিয়ে যায়। সেখানে আরও ৪ বন্ধুকে ডেকে নিয়ে আসে এবং হত্যর হুমকি দিয়ে রাতভর দলবেঁধে ধর্ষণের পর তাকে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।

নির্যাতিত কিশোরী রাতেই তার ভাইকে ফোন করলে তিনি এসে উদ্ধার করেন। বিষয়টি নিয়ে আতংকে ও সম্মানের ভয়ে গোপনে রাখে পরিবারের লোকজন।

খবর পেয়ে বুধবার সকালে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে ভিকটিমকে উদ্ধার করে। দুপুরে তার বাবা বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। ভিকটিমকে মেডিকেল চেকআপের জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

Share via
Copy link